Kolome71

আইপিএল থেকে মুস্তাফিজকে ডেকে পাঠাচ্ছে বিসিবি

গতকাল থেকে শুরু হয়েছে আইপিএল। আর প্রথম ম্যাচেই মাঠে নামে মুস্তাফিজের চেন্নাই সুপার কিংস। একাদশে ছিলেন কাটার মাস্টার ফিজ। শুধু একাদশ ছিলেন না পুরো ম্যাচে দেখিয়েছেন নিজের বোলিং জাদু। একে একে তুলে নিয়েছে ফাফ ডু প্লেসি, কোহলি ও ক্যামেরুন গ্রিনেরর মত বড় তারকাদের উইকেট। ৪ ওভার বল করে ৯ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট।

প্রথম ম্যাচেই দুর্দান্ত পারফরমেন্সের ফলে চেন্নাই’র বোলিং বিভাগে মুস্তাফিজের গুরুত্ব বহু গুনে বাড়িয়ে দিয়েছে। চেন্নাই সুপার কিংসের এবারের আসরের ট্রফি ভাগ্য নির্ধারণে বড় ভুমিকার রাখতে পারে দ্যা ফিজ। তবে শঙ্কার বিষয় হলো পুরো আসর জুড়ে কি ফিজের সার্ভিস পাবে চেন্নাই সুপার কিংস। আইপিএলের জন্য চাওয়া অনাপত্তি পত্রে মুস্তাফিজের ছুটি দেয়া হয়েছে বিশ্বকাপের আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম সিরিজ আগ পর্যন্ত।

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। তাইতো পুরো আসর খেলা মুস্তাফিজের জন্য অনিশ্চিত। এখনও আইপিএল ফাইনাল কবে তার কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি। তবে এবারের আইপিএলের ফাইনাল অনুষ্টিত হবে মে মাসের শেষ সপ্তাহে। প্লে-অপ পর্ব মাঠে গড়াতে গড়াতে চলে যাবে মে মাসের মাঝামাঝি। এদিকে আবার ২৮ এপ্রিল বাংলাদেশে এসে পৌছানোর কথা আছে জিম্বাবুয়ের। ৩ মে থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ের মধ্যকার পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

তবে এই সিরিজের প্রস্তুতি শুরু হবে আরো আগে থেকেই। চট্রগ্রাম হয়ে ১২ তারিখ মিরপুর দিয়ে শেষ হবে সিরিজ। তাহলে প্রশ্ন হলো আইপিএলে মুস্তাফিজের ভবিষ্যৎ কী? বিসিবি সূত্রের খবর জিম্বাবুয়ের সিরিজের শুরু থেকেই ফিজকে দলের সাথে যোগ দিতে বলা হয়েছে। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে এই পেসারকে বিশ্রাম দিয়ে খেলাতে চায় বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। মুলত ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্টর কারণে দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্যকে নিয়ে বিশ্বকাপের আগে কোনো রকম ঝুকি নিতে চায় না টিম ম্যানেজমেন্ট।

তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে আইপিএলে ফেরত যাবার সুযোগ থাকবে কাটার মাস্টার ফিজের। তবে এখানে বিসিবির ভাবনা অন্য রকম। বিশ্বকাপের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে ক্রিকেটারদের ১০ দিনের বিশ্রাম দেয়া হবে। যার ফলে সুযোগ থাকার সত্তেই আইপিএল খেলতে পারবে না ফিজ।

তবে বিসিবির ভাবনা বদলে যেতে পারে। একে তো স্বাগতিকদের মাঠে অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল জিম্বাবুয়ে। আবার বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দলের গভিরতা পরিক্ষা করতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট। খেলাতে পারে একাদশে সুযোগ না পাওয়া ক্রিকেটারদের। পাইপলাইনে তানজিম সাকিব-হাসান মাহমুদদের মতো পেসাররা ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে না। এই সিরিজ দিয়ে তারা নিজেদের প্রমাণ করতে পারে।অন্যদিকে, কাটার মাস্টার পেতেন আরও বেশি কম্পেটেটিভ ক্রিকেট খেলার সুযোগ।


Posted

in

by

Tags:

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *