Kolome71

ইতিহাস গড়ার লক্ষ্যে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এর আগে কখনোই কোনো টি-টোয়ন্টি সিরিজ জেতেনি বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, এই সিরিজের আগে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে লঙ্কানদের বিপক্ষে এর আগে কোনো ম্যাচও জেতেনি টাইগাররা। সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এবার সিরিজ জয়ের সুযোগ নাজমুল হোসেন শান্তর দলের। শনিবার (৯ মার্চ) সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায় ইতিহাস গড়ার মিশনে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

প্রথম ম্যাচটা জিততে জিততে হেরেছে বাংলাদেশ। হারের মুখ থেকে দলকে ম্যাচে ফিরিয়েছিলেন জাকের আলী অনিক এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তবে দুর্দান্ত ইনিংস খেললেও ফিনিশিংটা দিতে পারেননি কেউ। শেষ ওভারে ১২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করে ৮ রানের বেশি করতে পারেনি টাইগাররা।

প্রথম ম্যাচের আক্ষেপ ভুলে দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। লঙ্কানদের দেয়া ১৬৬ রানের লক্ষ্য ১১ বল হাতে রেখে টপকে গেছে নাজমুল হোসেন শান্তর দল। তবে এই ম্যাচে জয়ের চেয়েও বড় বিষয় হলো রানে ফিরেছেন অধিনায়ক শান্ত এবং সৌম্য সরকার। শান্ত ৩৮ বলে ৫৩ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলেছেন আর সৌম্যর ব্যাট থেকে এসেছে ২৬ রান।

দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পাওয়ায় শেষ ম্যাচে আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। দলের সবাই আছেন বেশ ফুরফুরে মেজাজে। তারুণ্যে ভরপুর দলটাতে নেই কোনো ইনজুরির শঙ্কাও। তাই তো শেষ ম্যাচে মাঠে নামার আগে আত্মবিশ্বাস ঝরল কোচ চান্ডিকা হাথুরুসিংহের কণ্ঠেও।

শেষ ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে এসে কোচ বলেন, ‘যদি শেষ ম্যাচের (দ্বিতীয় ম্যাচ) কথা বলেন, তাহলে বলব ব্যাটিং-বোলিংয়ে বাংলাদেশ পারফেক্ট গেম খেলেছে। যেমনটা আমরা পরিকল্পনা করেছিলাম। দলের জন্য যা ভালো মনে হবে আমরা তাই করব।’

শেষ ম্যাচে তারকা পেসার ম্যাচে মাথিশা পাথিরানাকে পাচ্ছে না শ্রীলঙ্কা। বাম পায়ের গ্রেড–ওয়ান হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে ছিটকে গেছেন তিনি। তবে পাথিরানা ছিটকে গেলেও এই ম্যাচে দলে ফিরেছেন লঙ্কানদের বড় অস্ত্র ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। আফগানিস্তান সিরিজে আম্পায়ারের বিরুদ্ধে নেতিবাচক মন্তব্য করায় তিনি দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞায় ছিলেন। বাংলাদেশ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে শেষ হয়েছে সেই নিষেধাজ্ঞা।

হাসারাঙ্গা ফেরায় দলের শক্তি বেড়েছে বলে মনে করেন লঙ্কান ম্যানেজার মাহিন্দা হালাঙ্গোদা। তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তান সিরিজের পর এখানেও দলের টপ অর্ডাররা ভালো করছে। আশা করি কালও তারা ঘুরে দাঁড়াবে এবং সিরিজ নিশ্চিত করবে। হাসারাঙ্গা ফিরছে, তার আগমন দলে বাড়তি শক্তি জোগাবে। একইসঙ্গে দিনের বেলা যেহেতু ম্যাচ; ফলে শিশিরও থাকবে না, যাকে সে কাজে লাগাতে পারবে।’

লঙ্কান ব্যাটিং কোচ থিলিনা কান্ডাম্বির কণ্ঠেও ছিল একই সুর, ‘আমাদের ছেলেরা এখন ভালো ক্রিকেট খেলছে। অভিজ্ঞতা ও আত্মবিশ্বাসের দিক থেকে শ্রীলঙ্কা এগিয়ে। আমরা জয় দিয়ে সিরিজ শেষ করব।’

সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা যতবারই মুখোমুখি হয়েছে ততবারই উত্তেজনা ছড়িয়েছে। মাঠ এবং মাঠের বাইরের অনেক ঘটনা সেই উত্তাপে ঘি ঢেলেছে। এবারের সিরিজেও বিতর্ক আর প্রতিদ্বন্দ্বিতা কম দেখা যায়নি। সিলেটে শনিবার শেষ ম্যাচের নাটকীয়তার অপেক্ষায় বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট সমর্থকরা।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

লিটন দাস, সৌম্য সরকার, নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), তাওহীদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, জাকের আলী অনিক, শেখ মেহেদী, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম।


Posted

in

by

Tags:

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *