Kolome71

কোচিং সেন্টারে শিক্ষার্থীদের সামনে শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলায় কোচিং সেন্টারে শিক্ষার্থীদের সামনে লিটন মজুমদার (৪৫) নামে এক মাদ্রাসাশিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (৬ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার গলিয়ারা দক্ষিণ ইউনিয়নের নলকুড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত লিটন মজুমদার গলিয়ারা দক্ষিণ ইউনিয়নের নলকুড়ি এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে। তিনি নলকুড়ি ফোরকানিয়া মাদ্রাসার বাংলা ও ইংরেজির বিষয়ের শিক্ষক  ছিলেন।

এ দিকে এ ঘটনায় মূলহোতা শাফায়াত আলীকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি একই এলাকার মৃত শাহ আলম মজুমদারের ছেলে। শাফায়াত মাদকসেবী ছিলেন বলে জানা গেছে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো আলমগীর ভূঁইয়া।

স্থানীয়রা জানান, লিটন ছেলে-মেয়েদের নিজের ব্যক্তিগত কোচিং সেন্টারে পড়াচ্ছিলেন। এমন সময় ওই এলাকার বিদেশ ফেরত শাফায়াত আলী কোচিং সেন্টারের ভেতরে গিয়ে ওই শিক্ষকের পেছন থেকে প্রকাশ্যে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যান। ওই হত্যাকারী শাফায়াতের সঙ্গে শিক্ষকের কোনো দ্বন্দ্ব ছিলো না। তবে কী কারণে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় নিহতের মা আকলিমা ছেলেকে বাঁচাতে গেলে তার মাথায়ও কোপ মারেন শাফায়াত। ছেলের হত্যার খবর পেয়ে লিটনের বাবা তোফাজ্জল হোসেন জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত লিটন মজুমদারের মা আকলিমা বলেন, আমি আর কিছু চাই না, আমার কলিজার ধন ছেলের হত্যাকারীর ফাঁসি চাই।

গলিয়ারা দক্ষিণ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জামাল প্রধান বলেন, লিটন শিক্ষক হিসেবে যথেষ্ট ভালো ছিল। সকালে তার সঙ্গে আমার কথাও হয়েছে। যে হত্যা করেছে সে একজন মাদকাসক্ত লোক। এ ঘটনার পর তাকে এলাকাবাসী ধরতে গেলে সবার দিকে দা নিয়ে তেড়ে আসেন, তাই তাকে ধরা যায়নি। আমি এ হত্যাকারীর ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ধারালো অস্ত্র দিয়ে নিহতের মাথায় ও গলায় কোপানোর চিহ্ন রয়েছে। গলার কিছু অংশ বিচ্ছিন্ন ছিল। হাসপাতালে আনার আগেই ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা শাফায়েতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কারণ জানা যাবে বলে জানান ওসি।


Posted

in

by

Tags:

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *