শ্রীলঙ্কার বিদায়, দেশবাসীর ক্ষমা চেয়ে যা বললেন ম্যাথিউস


বিশ্বকাপ নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের সঙ্গে হারের শ্রীলঙ্কার সুপার এইটে উঠার দরজা প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। তৃতীয় ম্যাচ তাদের ছিল নেপালের বিপক্ষে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের লাডারহিলে বৃষ্টির দাপটে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয় তাদের। ম্যাচটিতে খেলতে না পারায় শ্রীলঙ্কায় বিদায়ঘণ্টা নিশ্চিত হয়ে যায়।

নিজেদের পারফরম্যান্সে প্রচণ্ড হতাশ শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। এজন্য নিজেদেরকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে দেশবাসীর কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক এই অধিনায়ক। তিনি বলেন, আমরা পুরো জাতিকে হতাশ করেছি। আমরা দুঃখিত কারণ আমরা নিজেদের হতাশ করেছি। এটা আমরা কখনোই আশা করিনি। আমরা অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছি কিন্তু সেগুলি নিয়ে চিন্তার কিছু নেই। এটা দুর্ভাগ্যজনক যে, আমরা দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে পারিনি।

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার এখনো এক ম্যাচ বাকি। ‘ডেড-রাবার’ ম্যাচে সেন্ট লুসিয়াতে তাদের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস। নেদারল্যান্ডসের জন্য এই ম্যাচটা বড় কিছু হতে পারে। নেপাল যদি বাংলাদেশকে হারাতে পারে এবং নেদারল্যান্ডস যদি বাংলাদেশের রান রেটকে টপকে যেতে পারে তাহলে ডাচরাই যাবে সুপার এইটে। তবে শেষ ম্যাচে ডাচদের বিপক্ষে জিতে নিজেদের মান বাঁচাতে চায় শ্রীলঙ্কা।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে আমাদের ভালো খেলতে হবে। তারা বেশ বিপজ্জনক দল। আশা করছি, আমরা ভালো খেলব এবং তাদের হারাতে পারব।

বিশ্বকাপের আগে শ্রীলঙ্কা তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় করে খেলতে এসেছিল। কিন্তু বিশ্বকাপ মঞ্চে পারফর্ম করতে না পারায় নিজেদের ওপর তারা বেশ বিরক্ত, ‘এটা খুবই হতাশার যে আমরা আফগানিস্তান, জিম্বাবুয়ে এবং বাংলাদেশের বিপক্ষে বাংলাদেশে যেভাবে খেলেছি তার ধারের কাছেও এবার পারফর্ম করতে পারিনি। আমি মনে করি, নিজেদের নিয়ে আমরা সুবিচার করিনি।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *